বাংলাদেশে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের অনেকেই হঠাৎ সকাল থেকে তাদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ পাচ্ছেন

sottokantho এপ্রিল ১৭, ২০১৭ Technology

নিজস্ব প্রতিনিধি – এখন বন্ধ হওয়া অ্যাকাউন্ট চালু করতে যাচাই (ভেরিফিকেশন) প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে বলছে ফেসবুক। জাতীয় পরিচয়পত্র, মেইল ঠিকানা ও অ্যাকাউন্ট নাম ফেসবুকের কাছে পাঠিয়ে তা পর্যালোচনার জন্য জমা দিতে বলা হচ্ছে। হেল্প সেন্টারে গিয়ে ‘সাবমিট অ্যান আপিল’ লিংকে ক্লিক করে প্রয়োজনীয় তথ্য দিলে তা পর্যবেক্ষণে রাখছে ফেসবুক।

ফেসবুক সিকিউরিটি টিমের এক পোস্টে বলা হয়েছে, ভুয়া অ্যাকাউন্ট ঠেকানোর কার্যকর উপায় হিসেবে উন্নত ব্যবস্থা নিয়েছে ফেসবুক। এ ক্ষেত্রটিকে উন্নত করলে ফেসবুক কমিউনিটি উন্নত হবে। এটা বিজ্ঞাপনদাতা, প্রকাশক, সহযোগীসহ সবার কাজে আসবে।

ছয় মাস ধরে চলা ‘স্প্যাম অপারেশনের’ একটি নতুন পদক্ষেপ আজ শনিবার গ্রহণ করার কথা বলেছে ফেসবুক। ফেসবুকের প্রটেক্ট অ্যান্ড কেয়ার টিমের কারিগরি প্রোগ্রাম ব্যবস্থাপক শবনম শেখ এক ব্লগ পোস্টে বলেছেন, বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া, সৌদি আরবসহ অন্যান্য কয়েকটি দেশ থেকে আসা ভুয়া লাইক ও মন্তব্য ঠেকাতে এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। দেখা গেছে, অ্যাকাউন্ট তৈরির পরিবর্তে যৌথভাবে লাইক সংগ্রহ করার নেটওয়ার্ক পরিচালনা করা হয়। প্রক্সি ব্যবহার করে অবস্থান লুকানো হয়।

ফেসবুক দাবি করেছে, তাদের সিস্টেম অবৈধ কার্যক্রম পরিচালনার সঙ্গে যুক্ত বিশাল একটি গ্রুপকে শনাক্ত করেছে এবং বিশাল ভুয়া লাইক সরিয়ে ফেলেছে। তারা সহযোগীদের কাছ থেকেও সন্দেহজনক কার্যক্রমে যুক্ত অ্যাকাউন্ট শনাক্তে সাহায্য পেয়েছে। ভুয়া অ্যাকাউন্ট সরানোয় যেসব পেজে ১০ হাজারের বেশি লাইক আছে, তাতে ৩ শতাংশ লাইক কমবে।

সন্দেহজনক কর্মসূচিতে বাধা দেওয়ায় এই স্প্যামার নেটওয়ার্ককে প্রতিরোধ করা যাবে বলে মনে করছে ফেসবুক। ফেসবুক নিরাপদ রাখতে ভুয়া লাইক আরও দ্রুত শনাক্ত করা ও ফেসবুক নিরাপদ রাখার কথা বলছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। তথ্যসূত্র : ফেসবুক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *