কিম জং উনকে হত্যার ব্রু-প্রিন্ট তৈরি করছে যুক্তরাষ্ট্র

sottokantho sottokantho এপ্রিল ০৯, ২০১৭ Technology

উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে পারমাণবিক অস্ত্র হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। একইসঙ্গে দেশটির যুদ্ধবাজ নেতা ও কমিউনিস্ট প্রেসিডেন্ট কিম জং উনকে হত্যা করার ব্লু-প্রিন্টও তৈরি। এরইমধ্যে ইউএস ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিল এই বিষয়ে একটি সম্পূর্ণ রিপোর্ট দিয়েছে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। কিমের যথেচ্ছাচারে রাশ টানতে ও উত্তর কোরিয়াকে শিক্ষা দিতেই এবার কড়া পদক্ষেপ করতে পারে ওয়াশিংটন বলে জানিয়েছে এনবিসি নিউজ।

গত এক বছর ধরে সব দেশের চোখ রাঙানিকে উড়িয়ে দিয়ে একতরফাভাবে পর পর পরমাণু বোমা, হাইড্রোজেন বোমা, দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছেন স্বৈরাচারী কিম। মহাশক্তিধর প্রতিবেশী চীনও সংযত করতে পারেনি তাঁকে। ট্রাম্প উত্তর কোরিয়াকে দমন করার হুঙ্কার ছাড়তেই ফের ট্রাম্পকে চ্যালেঞ্জ করে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়েন কিম। বুঝিয়ে দেন, আমেরিকাকে থোড়াই কেয়ার করেন তিনি। চলতি সপ্তাহেই দেশের পূর্ব উপকূলে ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালান তিনি। ক্ষেপণাস্ত্রটি জাপান সাগরে আঘাত হানে। এটি কে-১৫ মডেলের মাঝারি পাল্লার মিসাইল। জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, রাশিয়া এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার নিন্দা করে৷ এই ক্ষেপণাস্ত্রটি ১৮৯ কিলোমিটার পর্যন্ত যে কোনও লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম। তখনই মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের কড়া প্রতিক্রিয়া দেন, উত্তর কোরিয়াকে শিক্ষা দেয়ার সময় এসেছে।

তবে উত্তর কোরিয়াও ২০০৫ থেকে পারমাণবিক ক্ষমতাসম্পন্ন দেশ। আমেরিকা, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া এমনকি রাশিয়াও কোরীয় উপদ্বীপে উত্তর কোরিয়াকে যে কোনও পারমাণবিক মহড়া থেকে বিরত রাখতে দফায় দফায় বৈঠক করে। কিন্তু পিয়ংইয়ংকে নিরস্ত্র করা যায়নি। হোয়াইট হাউস জানিয়েছিল, যুদ্ধংদেহি উত্তর কোরিয়াকে সংযত করতে একতরফাভাবে কঠোর ব্যবস্থা নিতে চলেছে আমেরিকা। তবে তার পাল্টা জবাব দিয়ে উত্তর কোরিয়ার কমিউনিস্ট প্রেসিডেন্ট কিম জং উন ট্রাম্পের চীন সফরের আগে ফের দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেন।

কিম ও কমিউনিস্ট কোরিয়াকে দমন করতে বৈঠকে বসতে চলেছেন ট্রাম্প ও চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। মার্কিন মুলুকে বিশ্বের দুই মহাশক্তিধর রাষ্ট্রপ্রধানের মুখোমুখি বৈঠকের আগে সিরিয়া ইস্যুতে রুশ-মার্কিন সঙ্ঘাত আবহে অন্য মাত্রা পাচ্ছে পূর্ব নির্ধারিত এই বৈঠকটি। বৃহস্পতিবারই মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও মার্কিন সেনাপ্রধান ফ্লোরিডার ওয়েস্ট পাম বিচ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান সস্ত্রীক চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে। প্রায় একঘণ্টা পরে সেখানে উপস্থিত হন ট্রাম্প। ট্রাম্প ও তাঁর স্ত্রী মেলানিয়া অভ্যর্থনা জানান আমেরিকা সফরে আসা জিনপিং ও তাঁর স্ত্রী পেং লিউয়ানকে।

রাষ্ট্রসংঘে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিক্কি হ্যালে স্পষ্টই জানিয়েছেন, উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে আমেরিকা আর কোনও বৈঠকে বসতে রাজি নয়।

সূত্র – অনলাইন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *